বৃহস্পতিবার   ১২ ডিসেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ২৮ ১৪২৬   ১৪ রবিউস সানি ১৪৪১

বাড়ি নির্মানে বাঁধা দেয়ার  কাউন্সিলর ফারুকের সাথে বাক বিতন্ডা

প্রকাশিত: ১০ অক্টোবর ২০১৯  

স্টাফ রিপোর্টার (যুগের চিন্তা ২৪) : সিদ্ধিরগঞ্জে রাজউকের প্লান বহির্ভূত বাড়ী নির্মাণ কাজে বাঁধা প্রদান করায় স্থানীয় কাউন্সিলর হাজী ওমর ফারুকের সাথে অলিউল্লাহ গংদের বাক বিতন্ডা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

 

বৃহস্পতিবার (১০ অক্টোবর) সকাল সাড়ে ১০ টায় নাসিক ১নং ওয়ার্ডের মিজমিজি বাতেনপাড়া ডিএনডি ক্যানেল সড়ক এলাকায় এ ঘটনাটি ঘটেছে।

 

বাক বিতন্ডাকারী অলিউল্লাহ অলি মিজমিজি বাতেনপাড়া এলাকার মৃত জাফর আলীর ছেলে। সে বিলুপ্ত সিদ্ধিরগঞ্জ ইউনিয়নের সাবেক ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ও বিএনপি নেতা রওশন আলীর ছোটভাই। গত জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপি থেকে আওয়ামীলীগে যোগদান করে বলেও জানা গেছে।

 

এ ব্যাপারে নাসিক ১নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর হাজী ওমর ফারুক জানায়, মিজমিজি বাতেনপাড়া এলাকায় বিএনপি নেতা রওশন চেয়ারম্যানের ছোটভাই অলিউল্লাহ অলি তার মেয়ের জামাই মোক্তার হোসেনের জন্য একটি বাড়ী নির্মাণ করছে। 

 

রাজউক থেকে প্লান আনলেও শর্ত অমান্য করে রাস্তার জায়গা না ছেড়ে নির্মাণ কাজ চালিয়ে যাওয়ায় স্থানীয় বাসিন্ধারা আমার কার্যালয়ে একটি লিখিত অভিযোগ দেয়। সেই অভিযোগের প্রেক্ষিতে সকাল সাড়ে ১০টায় ঘটনাস্থলে পরিদর্শনে যাই। 

 

পরিদর্শনে গিয়ে দেখি রাজউকের নিয়ম অনুযায়ী বাড়ীর সামনের রাস্তা ৮ ফুট এবং বিল্ডিংয়ের পাশে ৪ ফুট ছেড়ে দেওয়ার কথা থাকলেও তারা তা না করেই নির্মাণ কাজ করছে। তখন আমি অলিউল্লাহকে জিজ্ঞেস করলাম মামা তোমরা কি রাজউকের প্লান অনুযায়ী কাজ করছো। 

 

তখন সে আমাকে বলে এখন আওয়ামীলীগ সরকার ক্ষমতায়, আমরা আওয়ামীলীগ করি নিয়ম-টিয়ম বুঝিনা, আমাদের যা খুশি তাই করবো। এ বলে ক্ষিপ্ত হয়ে আমার সামনেই যারা অভিযোগ করেছিল তাদেরকে অকথ্য ভাষায় গালাগালি করতে থাকে। তখন আমি তাদেরকে কাজ বন্ধ করে প্লান অনুযায়ী সঠিকভাবে কাজ করার কথা বলে ঘটনাস্থল থেকে চলে আসি।

 

তিনি আরো বলেন, আমি ঘটনাস্থল থেকে এসে রাজউকের ইমারত পরিদর্শক সুমন চন্দ্র দাসকে বিষয়টি জানালে সে পূজার ছুটিতে কর্মস্থলে না থাকায় আগামী রবিবারে ঘটনাস্থলে এসে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। 


এছাড়াও কাউন্সিলর ফারুক জানায়, অলিউল্লাহ অলি নিজেকে সিদ্ধিরগঞ্জ থানা আওয়ামীলীগের সভাপতি মজিবুর রহমানের ভাগিনা পরিচয়ে এলাকায় নানাবিধ অপকর্ম করে বেড়াচ্ছে। তার অপকর্মের কারণে আওয়ামীলীগের বদনাম হচ্ছে।

 

এ প্রসঙ্গে মোবাইলে জানতে চাইলে অলিউল্লাহ অলির মেয়ের জামাই মোক্তার হোসেন জানায়, ভাই এখানে তেমন কোন ঘটনা ঘটেনি। এটি তুচ্ছ ঘটনা, কাউন্সিলর ও আমার শ্বশুর মামা-ভাগিনা। 

 

কাউন্সিলর রবিবার পর্যন্ত আমাদেরকে সময় দিয়েছে আমরা আপনাকে পরে বিষয়টি জানাবো। রাজউকের প্লান অনুযায়ী কাজ হচ্ছে কিনা জানতে চাইলে প্রসঙ্গটি এরিয়ে গিয়ে পড়ে কথা হবে বলে ফোন কেটে দেয়।
 

এই বিভাগের আরো খবর