সোমবার   ১৭ জুন ২০১৯   আষাঢ় ৪ ১৪২৬   ১৩ শাওয়াল ১৪৪০

ফতুল্লা পুলিশের অভিযানে ভন্ড জোতিষ ও পীর আটক

প্রকাশিত: ১১ জুন ২০১৯  

স্টাফ রিপোর্টার (যুগের চিন্তা ২৪) : ফতুল্লা থানা পুলিশ বন্দরে অভিযান চালিয়ে সুলতান মিয়া নামে এক ভন্ড জ্যোতিষি ও পীরকে গ্রেফতার করেছে। 


ফতুল্লার ইসদাইর এলাকার আবুল কাশেমের অভিযোগের সুত্র ধরে ফতুল্লা মডেল থানার উপপরিদর্শক মো.সালেকুজ্জামান সোমবার ( ১০ মে ) রাতে বন্দর রুপালী এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করেন। 


অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, শরিয়তপুর জেলার ঘোষেরহাটের দক্ষিন ধানপাড়া এলাকার মৃত.ঈসমাইল খানের ছেলে সুলতান মিয়া প্রায় ২ মাস পুর্বে এলাকার সহজ-সরল মহিলাদেরকে নিজেকে জোতিষি ও পীর দাবী করে বিভিন্ন সমস্যা সমাধানের কথা বলে বিভিন্ন সময়ে নগদ অর্থসহ স্বর্নালংকার হাতিয়ে নেয়। 


আবুল কাশেমের ডায়েবেটিকস ভালো করে দেবার কথা বলে গত ১৭ মে নগদ ১০ হাজার টাকা  নেয়। পরে সুলতান তাকে ৪টি পেপে দেয় এবং সেটি তকবীর করে খালি পেটে খেতে বলেন। 


এতে করে কোন পরিবর্তন না হলে ভন্ড সুলতান কাশেমের মেয়ের কাছে তার কানের দুল দাবী করে, যদি তা না দেয় তাহলে কাশেম ১০ দিনের মধ্যে মারা যাবো বলে ভয়ভীতি দেখায়। আর তা না হলে সুস্থতার জন্য আরো ৫৪ হাজার টাকা দাবী করে। 


কাশেমের মেয়ে বাবার মঙ্গল কামনায় কানের স্বর্নের দুল বিক্রি করে ১২ হাজার টাকাসহ আরও নগদ ৫৪ হাজার টাকা প্রদান করেন সুলতানকে। 


এসব কায়দায় সুলতান মিয়া স্থানীয় মালেক মিয়ার স্ত্রীকে সন্তান লাভের আশা দিয়ে এবং আমার অনেক আতœীয়-স্বজনসহ অনেকের কাছ থেকে মোট ২ লাখ ৯৪ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয়।


ফতুল্লা মডেল থানার উপপরিদর্শক মো.সালেকুজ্জামান জানান, দেখতে প্রতিবন্ধী হলেও সুলতান একজন ভন্ড প্রতারক। সে নিজেকে বিভিন্ন মানুষের কাছে জ্যোতিষি, পীর দাবী করে ভয় দেখিয়ে টাকা হাতিয়ে নিতো। আটক সুলতানকে আদালতে প্রেরন করা হয়েছে।
 

এই বিভাগের আরো খবর