শুক্রবার   ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯   আশ্বিন ৪ ১৪২৬   ২০ মুহররম ১৪৪১

পরিবেশ দূষণের কারণে বাংলাদেশে প্রতিবছরেই মৃত্যু হার বাড়ছে

প্রকাশিত: ৩ আগস্ট ২০১৮  

মোরছালীন বাবলা : পরিবেশ দূষণের কারণে প্রতিবছরেই মৃত্যু হার বেড়েই চলেছে। পরিসংখ্যানে উঠে এসেছে,বিশে^ প্রতিবছর ছয়জনের মধ্যে একজন মানুষ মারা যাচ্ছে শুধুমাত্র পরিবেশ দূষণের শিকার হয়ে। বিশে^ যতগুলো দেশ আছে মাত্রাতিরিক্ত দূষণের কারণে আক্রান্ত,তারমধ্যে বাংলাদেশ অন্যতম। 

দূষণের মৃত্যুর দিক থেকে বাংলাদেশ এবং সোমালিয়া সবচেয়ে উপরে অবস্থান করছে। যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক চিকিৎসা বিষয়ক গবেষণা সাময়িকী দ্য ল্যানসেটে প্রকাশিত এক প্রতিবেদন থেকে দাবি করেছে, বাংলাদেশ ও সোমালিয়ায় মোট মৃত্যুর প্রায় ২৮ শতাংশ পরিবেশ দূষণ জনিত নানাবিধ রোগবালাইয়ের কারণে হয়ে থাকে।

২০১৫ সালে বিশ^ব্যাপী ৯০ লাখ মানুষ মারা গেছে পরিবেশ দূষণের কারণে। বেশির ভাগ মৃত্যুই হয়েছে মাঝারি ও নি¤œ আয়ের দেশগুলোতে। ক্ষতিগ্রস্থদের তালিকায় বাংলাদেশ ও সোমালিয়ার নাম উঠে এসেছে। 

অপরদিকে ধনী রাষ্ট্র হিসাবে পরিচিত ব্রুনাইয়ে সবচেয়ে কম মানুষ পরিবেশ দূষণের কারণে মারা যায়। দেশটিতে মোট মৃত্যুর মাত্র আড়াই শতাংশের কারণ পরিবেশ দূষণ। সুইডেনে এই হার প্রায় চার শতাংশ। 

যুক্তরাষ্ট্র,যুক্তরাজ্য,ভারতসহ পরিবেশ দূষণের শীর্ষে থাকা দেশগুলো হচ্ছে বাংলাদেশ,সোমালিয়া,চাদ,নাইজার,নেপাল,দক্ষিণ 
সুদান,ইরিত্রিয়া,মাদাগাস্কার,পাকিস্তান। পরিবেশ দূষণ সংক্রান্ত সমস্যার কারণে যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্য ছাড়া অন্য দেশগুলোতে মৃত্যুহার বেশি। 

পরিবেশ দূষণের কারণে সবচেয়ে কম মৃত্যু হচ্ছে এমন দেশের তালিকায় রয়েছে, ব্রুনাই, সুইডেন, ফিনল্যান্ড, বার্বাডোজ, নিউজিল্যান্ড, ত্রিনিদাদ এন্ড টোবাগো,কানাডা,আইনল্যান্ড,বাহামা,নরওয়ে,যুক্তরাষ্ট্র,যুক্তরাজ্য। 

দূষণ জানিত কারণে সবচেয়ে বেশি মৃত্যু হওয়া দেশগুলোর তালিকায় ভারতের অবস্থান পঞ্চম এবং চীনের অবস্থান ১৬তম। যুক্তরাজ্যে প্রতিবছর দূষণ জনিত রোগের কারণে ৫০ হাজারের বেশি মানুষের মৃত্যু হয়। তালিকায় এই দেশটির অবস্থান৫৫তম। আরা যুক্তরাষ্ট্রে প্রতিবছর মারা যায় প্রায় এক লাখ পঞ্চান্ন হাজার মানুষ। 

প্রতিবেদনটির বরাত দিয়ে বিবিসি তার খবরে বলেছে,বায়ু দূষণ সবচেয়ে বেশি ক্ষতিকর প্রভাব রাখছে। প্রায় দুই-তৃতীয়াংশ মৃত্যুই বায়ু দূষণের কারণে হচ্ছে বলে প্রতিবেদনটিতে বলা হয়েছে। 

দূষণ জনিত মৃত্যুতে সবচেয়ে বড় ভূীমকা বায়ু দূষণের , যা মোট মৃত্যুর প্রায় দুই-তৃতীয়াংশ। প্রতিবছর বায়ু দূষণের কারণে ৬৫ লাখ মানুষ মারা যাচ্ছে। পরিবেশ দূষণের কারণে হৃদরোগ,স্ট্রোক ও ফুসফুসে ক্যান্সারে আক্রান্ত হচ্ছে সবচেয়ে বেশি মানুষ। 
 
ল্যানসেটের প্রধান গবেষক আইকন স্কুল অব মেডিসিনের অধ্যাপক ফিলিপ ল্যান্ডরিগান বলেন,জলবায়ু পরিবর্তনের চেয়ে পরিবেশ দূষণ অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। এটা নানা দিক দিয়ে মানবজাতির স্বাস্থ্য ও সুস্থতার উপর গভীর ও বিস্তৃত হুমকি। 

বায়ু দুষণের পরেই পানি দূষণের অবস্থান। প্রতিবছর প্রায় ১৮ লাখ মানুষ পানি দূষণ জনিত রোগে মারা যায়। কর্মক্ষেত্রে দূষণ ৮ লাখ মানুষের মৃত্যুর জন্য দায়ি। বাংলাদেশে পানিতে আর্সেনিকের উপস্থিতি ভয়াবহ। 

আর্সেনিক আক্রান্ত হয়ে প্রতিবছরেই অসংখ্যা মানুষ মারা যাচ্ছে। ইটভাটা,ক্যামিকেল কারখানা থেকে নির্গত ধোঁয়ায় প্রতিনিয়ত বাংলাদেশে পরিবেশ দূষিত হচ্ছে। দিন দিন ডাইংসহ বিভিন্ন কারাখানার বর্জ্যে যেভাবে খাল বিল থেকে নদীর পানি পর্যন্ত দূষিত করে তাতে করে অদূর ভবিষ্যতে সুপেয়ে পানির অভাব দেখা দিতে পারে এই বাংলাদেশে। 
 

এই বিভাগের আরো খবর