শুক্রবার   ১৫ নভেম্বর ২০১৯   কার্তিক ৩০ ১৪২৬   ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

দুই নম্বর কাজ করে আ’লীগে থাকবেন, সুযোগ নেই : আনোয়ার হোসেন

প্রকাশিত: ১২ অক্টোবর ২০১৯  

স্টাফ রিপোর্টার (যুগের চিন্তা ২৪) : জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন বলেছেন, দুনীর্তিতে কোন ছাড় দিবে না প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। যারা দেশের ক্ষতিকর কাজে নিয়োজিত থাকবে, তাদের বিরুদ্ধে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সদস্যরা ইতিমধ্যে ব্যবস্থা নিচ্ছে, আরো নিবে। তাই যে কেউ দুই নম্বর কাজ করে আওয়ামীলীগে ভিতরে বসে থাকবেন, তা কিন্তু এখন সুযোগ নেই। 


দেশের উন্নয়নে বার্তা স্কুলগুলোতে পৌছে দিচ্ছেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তার যোগ্যতায় ইতিমধ্যে আন্তজার্তিক পুরস্কৃত হচ্ছেন। প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে বিশ্বের দরবারে বাংলাদেশ উন্নত দেশে রূপান্তর করা হচ্ছে। 


দেশের সকল স্কুলগুলোতে আধুনিক ভবন নির্মাণ করে, শিক্ষকদের এমপিওভুক্ত করে শিক্ষা মানকে উন্নত করে যাচ্ছে। জেলা পরিষদের মাধ্যমে স্কুলের শিক্ষার্থীদের মধ্যে বিনামূল্য ব্যাগ, তিনটি করে খাতা সেট, পেন্সিল, কলম ও রবার্ট দেয়া হচ্ছে। 


দেশের মানুষদের আত্মনির্ভরশীল করে তুলতে দেশে পুরুষদের পাশাপাশি মহিলাদের স্বাবলম্বী করে তুলছেন। আগে সন্তানদের নামের পাশে পিতাদের নাম দেয়া হত। এখন তিনি পিতা নামের মাতাদের নাম সন্তানদের পরিচয়ে লিপিবদ্ধ করা হচ্ছে।


মানুষের পক্ষে কথা বলতে গিয়ে অনেক নির্যাতনের শিকার হয়েছি, জেলও খাটতে হয়েছে। আমি কোন বড় নেতা না, আমি শেখ হাসিনার একজন কর্মী। মানুষের উন্নয়নের কাজ করতে জনপ্রতিনিধি হতে চেয়েছি, নেত্রী খুশি হয়ে আমাকে এ পদ দিয়েছেন।


১২ অক্টোবর বেলা ১১টা থেকে সোনারগাঁ উপজেলার শম্ভুপুরা ইউনিয়নের ৭৯নং মনাইর কান্দি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ও ৭৪নং চৌধুরীগাও সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় সহ ৪টি স্কুলে জেলা পরিষদের উদ্যোগে বিনামূল্য শিক্ষা উপকরণ বিতরণ অনুষ্ঠানে তিনি প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।


নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদ সদস্য এডভোকেট নূর জাহানের সভাপতিত্বে বিশেষ ছিলেন, সোনারগাঁ শিক্ষা অফিসার নিখিল চন্দ্র বিশ্বাস, জেলা পরিষদের সদস্য মোঃ ফারুক হোসেন, মোস্তাফিজুর রহমান মাসুম, প্রধান শিক্ষিকা আফরৌজ সিদ্দিক, প্রধান শিক্ষিক মোখলেছুর রহমান। 


এ সময় ৪টি স্কুলের শিক্ষার্থীদের মধ্যে ৬শ ব্যাগ, তিনটি করে খাতা, রবার্ট, কলম ও পেন্সিল বিতরণ করা হয়।


আনোয়ার হোসেন আরো বলেন, আপনাদের ছেলেদের পাশাপাশি মেয়েদেরকেও বিদ্যালয়ে পাঠাবেন। ছেলেদের পাশাপাশি মেয়েরাও আগামী দিনে উচ্চপদস্থ পদে নিয়োগ পাবে এবং তারা দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে সকলের সাথে সমানতালে কাজ করবে। 


'প্রধানমন্ত্রী সারাদেশে প্রতিটি বিদ্যালয়ে মিড ডে মিল চালু করার চেষ্টা করছেন। কিছু সমস্যা রয়েছে সেগুলো সমাধান করে সকলের জন্য এ ব্যবস্থা চালু করা হবে যেন বাচ্চারা আরো বেশি বিদ্যালয়মুখী হয় এবং দেশকে আমরা একটি শিক্ষিত ভবিষ্যৎ প্রজন্ম উপহার দিতে পারি। 


তিনি বলেন, আপনাদের যেকোন সমস্যায় আমার দরজা খোলা আছে আপনারা সরাসরি আমার সাথে যোগাযোগ করবেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্য আপনারা দোয়া করবেন তিনি বাঁচলে এদেশ আরো উন্নত হবে, আর আল্লাহ আমাকে বাঁচিয়ে রাখলে আমি আপনাদের পাশে থাকবো। 


সন্ত্রাসী চাঁদাবাজ ও ভূমিদস্যুদের আশ্রয় প্রশ্রয় দেবেন না। শুধু নারায়ণগঞ্জ শহর নয়, জেলা পরিষদ ও উপজেলা পরিষদ নয় পুরো জেলা জুড়েই উন্নয়নমূলক কাজ হয়েছে এবং হচ্ছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে।


জেলা পরিষদের সদস্য নূর জাহান বলেন, দেশের একমাত্র চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন যিনি প্রধানমন্ত্রী নিজে ফোন করে দায়িত্ব দিয়েছেন। তার মত চেয়ারম্যান প্রতিবার দরকার। ঢাবি থেকে ছাত্র ছিলেন, মর্গ্যান স্কুলের গভনিংবডি চেয়ারম্যান। শিক্ষা ব্যবস্থা উন্নত করার লক্ষ্যে তিনি শিক্ষা উপকরণ বিতরণের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।


অভিভাবক শাহানাজ আক্তার ব্যাগ পেয়ে বলেন, আমার ছেলে যেন আরেক শিশুদের ব্যাগ দিতে পারেন, তাই আনোয়ার হোসেন হতে চায় আমার ছেলে।
 

এই বিভাগের আরো খবর