সোমবার   ২২ জুলাই ২০১৯   শ্রাবণ ৭ ১৪২৬   ১৯ জ্বিলকদ ১৪৪০

জেলা প্রশাসনকে ধিক্কার জানাই : আব্দুস সালাম

প্রকাশিত: ৯ এপ্রিল ২০১৯  

স্টাফ রিপোর্টার (যুগের চিন্তা ২৪) : অন্যায় ছাড়া নিয়ম বহির্ভূতভাবে যুগের চিন্তা পত্রিকাটির ডিক্লেয়ারেশন (প্রামাণিকরণ)  বাতিল করার জন্য জেলা প্রশাসনকে ধিক্কার জানিয়ে, ঘৃণা ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন নারায়ণগঞ্জ জেলা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি আব্দুস সালাম। তিনি বলেন, নারায়ণগঞ্জ জেলা সাংবাদিক ইউনিয়ন সবসময় যুগের চিন্তা পক্ষে থাকবে। তার অধিকার আদায়ের পক্ষে থাকবে।

মঙ্গলবার (৯ এপ্রিল) সকাল সাড়ে ১১টায় নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের সামনে বহুল প্রচারিত দৈনিক যুগের চিন্তার ডিক্লেয়ারেশন (প্রামাণিকরণ) বাতিল করার প্রতিবাদে নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাব ও নারায়ণগঞ্জ জেলা সাংবাদিক ইউনিয়ন (এনইউজে) আয়োজিত মানববন্ধনে এসব কথা বলেন।

জেলা প্রশাসকের উদ্দেশ্য করে আব্দুস সালাম বলেন, আপনি সরকারি কর্মচারী, আপনার দায়বদ্ধতা সরকারের কাছে। কিন্তু জনগণের চিন্তা না করে, পাঠকের চিন্তা না করে কি কারণে, যুগের চিন্তার মতো পত্রিকা বন্ধ করে এই সরকারকে আবার সমালোচনার মুখে ঠেলে দিলেন।  কেন আমাদের রাজপথে নামতে হলো, তার ব্যাখ্যা আপনাকে দিতে হবে। এই ব্যাখা না দিয়ে আপনি নারায়ণগঞ্জ থেকে যেতে পারবেন না।

আব্দুস সালাম স্পষ্ট ভাষায় জেলা প্রশাসকের উদ্দেশ্যে বলেন, কারো অনুনয়-বিনয়ে যদি যুগেরচিন্তাকে বন্ধ করা হয়ে থাকে তাহলে এই দায় এই সরকারকে নিতে হবে। সরকারকে যদি কোন দায় নিতে হয় আপনাকে দায়ী থাকতে হবে।

আপনার যত কুকর্ম, নারায়ণগঞ্জে বসে আপনি যা করছেন তার হিসেব নারায়ণগঞ্জবাসীকে দিতে হবে। আপনাকে ব্যাখা দিতে হবে, কেন যুগেরচিন্তার প্রকাশনা বন্ধ করলেন। আপনি ছোট একটা কারণ দেখালেন, যে প্রেস থেকে যুগেরচিন্তা ছাপানোর কথা সেই প্রেস থেকে না ছাপিয়ে অন্য প্রেসে ছাপানো হচ্ছে। এটাই নাকি যুগের চিন্তা অপরাধ, এই কারণেই যুগেরচিন্তার ডিক্লেয়ারেশন বাতিল করে দেওয়া হল।

তিনি জেলা প্রশাসকের কাছে প্রশ্ন রাখেন আপনি কি জবাব দেবেন, যারা ডিএফপির অনুমোদন নিয়ে নারায়ণগঞ্জে বা অন্য জেলাতে বসে পত্রিকা বের করে ডিএফপির টাকা নিচ্ছে, ডিএফপির কারণে যারা বিজ্ঞাপন পাচ্ছে অথচ সংবাদপত্রে সংবাদকর্মীকে বেতন, ভাতা কিছুই দিচ্ছে না। তাদের বিষয় নিয়ে আপনার কোন দায় দায়িত্ব নেই, আপনার দায়দায়িত্ব হচ্ছে কিভাবে যুগের চিন্তা পত্রিকা এক প্রেসের পরিবর্তে অন্য প্রেসে ছাপানো হচ্ছে।

সেই অধিকার দেখিয়ে আপনি যুগেরচিন্তার ডিক্লেয়ারেশন বাতিল করছেন। কিন্তু আমাদের প্রশ্ন হচ্ছে এরকম কত অপরাধ হয়ে থাকে, যেগুলো আপনি চোখে দেখেন না। আপনার বন্ধুরা, আপনার প্রশাসনের কর্মকর্তারা চোখে দেখেন না।  

চোখে দেখেন যুগের চিন্তা, কারণ কি, যুগেরচিন্তা গণমানুষের কথা বলে, যুগের চিন্তা নারায়ণগঞ্জের সর্বাধিক প্রচারিত পত্রিকা, আপনাদের প্রশাসনের অপকর্ম নিয়ে রিপোর্ট করে, আপনাদের বানানো সন্ত্রাস নিয়ে যুগের চিন্তা রির্পোট করে, আপনাদের মাদক নিয়ে যুগেরচিন্তা রিপোর্ট করে। আপনার অধিকার কতটুকু আছে সেটাও মাননীয় জেলা প্রশাসক সেটা আমরা জানতে চাই।

নারায়ণগঞ্জ জেলা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি আব্দুস সালাম বলেছেন, আজকে নারায়ণগঞ্জের শত শত সাংবাদিক আজকে পথে দাঁড়িয়েছে। এমনিভাবে আমরা একদিন পথে দাঁড়িয়েছিলাম, যেদিন শরিফুদ্দিন সবুজকে মাথা ফাঁটিয়ে দেওয়া হয়েছিলাম। আজকেও আমরা রাজপথে দাড়িয়েছি আমাদের রুটি-রুজি অধিকারের জন্যে। আমরা যারা সংবাদপত্রে কাজ করি তাদের অধিকারের জন্যে। গত পরশুদিন নারায়ণগঞ্জের জেলা ম্যাজিস্ট্রেট নারায়ণগঞ্জের বহুল ও সর্বাধিক প্রচারিত পত্রিকা দৈনিক যুগের চিন্তার ডিক্লেয়ারেশন (প্রামাণিকরণ)  বাতিল করেছেন। এই পত্রিকার সাথে সম্পৃক্ত প্রায় শতাধিক সাংবাদিক গতকাল থেকে বেকার হয়েছেন।

আমরা সাংবাদিক ইউনিয়ন রুটি-রুজি অধিকারের জন্য সাংবাদিকের কাজ করে থাকি। আর যখন আমরা দেখলাম যুগেরচিন্তাকে কোন কারণ দর্শানো ছাড়াই ডিক্লেয়ারেশন বাতিল করল জেলা ম্যাজিস্ট্রেট তখন আমরা আমাদের অধিকারের জন্য রাজপথে দাঁড়িয়েছি।

আব্দুস সালাম প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলেন, একজন জেলা ম্যাজিস্ট্রেট যুগেরচিন্তার ডিক্লেয়ারেশন বাতিল করে শতাাধিক সাংবাদিককে বেকার করলেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আপনার কাছে এই বিষয়টি জানতে চাই।

তিনি বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আপনি একটি গণতান্ত্রিক সরকারের প্রধান। আপনি জাতিরজনক বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুরের কন্যা। আমরা যখন ফেডারেশনের মিটিং করি আপনাদের সাথে তখন বারবার আমাদের কথা বলেন সম্প্রতি আপনি সাংবাদিকদের কল্যাণ তহবিলে ২০ কোটি টাকা আমাদের দাবির প্রেক্ষিতে প্রদান করেছেন।   

তথ্যমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করে আব্দুস সালাম বলেন, আপনি গত পরশুদিন বলেছেন এবং আমরা চিঠি পেয়েছি প্রতেকটি পত্রিকার সাংবাদিকদের বৈশাখী ভাতা দিতে হবে। আজকের যুগেরচিন্তার একশত সাংবাদিক বেকার হলেন, তাদের বৈশাখী ভাতা কে দিবেন মাননীয় তথ্যমন্ত্রী? আপনি তো নির্দেশনা দিয়ে খালাস হয়ে গেছেন। আমরা সেই নির্দেশনা বাস্তবায়নের চিন্তা করছি, তখন যুগেরচিন্তার মতো পত্রিকাকে একজন জেলাপ্রশাসক কোন আদেশের উপরে ডিক্লারেশন বাতিল করলেন এমন প্রশ্ন রাখেন তিনি।

পরিশেষে আব্দুস সালাম হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, নারায়ণগঞ্জ জেলার সাংবাদিক ইউনিয়ন থেকে বলতে চাই, যদি জেলা প্রশাসন ডিক্লারেশন বাতিল তুলে না নেন তাহলে আমরা কথা দিচ্ছি, আমরা ফেডারেশনের সাথে কথা বলব, প্রয়োজনে ফেডারেশনের সাথে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সাথে আগামী মাসে একটি সভা হওয়ার কথা সেখানেও যুগের চিন্তার কথা তুলে ধরা ধরব।

প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করব, নারায়ণগঞ্জে একটি বহুল প্রচারিত পত্রিকাকে জেলা প্রশাসক কলমের খোঁচায় বন্ধ করে দিবেন, শতাধিক সাংবাদিককে বেকার করে দিবেন এটা আমরা হতে দিতে পারি না।

তিনি দাবি করে বলেন, আমরা সকল সাংবাদিকরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করছি এই পত্রিকাটি আবার প্রকাশ করা হোক। তিনি হচ্ছেন সংবাদকর্মীবান্ধব প্রধানমন্ত্রী। তার সুদৃষ্টি আমরা কামনা করছি।    

নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি মাহবুবুর রহমান মাসুমের  সভাপতিত্বে ও সাবেক সাধারণ সম্পাদক শরীফ উদ্দিন সবুজের সঞ্চালনায় মানবন্ধনে নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক হাসানুজ্জামান ভুঁইয়া শামীম,  নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি ও কবি হালিম আজাদ, সাবেক সাধারণ সম্পাদক নাফিজ আশরাফ, নারায়ণগঞ্জ জেলা সাংবাদিক  ইউনিয়নের  সভাপতি আব্দুস সালাম, সাধারণ সম্পাদক আফজাল হোসেন পন্টি, দৈনিক যুগের চিন্তা পত্রিকার নির্বাহী সম্পাদক এজাজ কুরেশী, নারায়ণগঞ্জ সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক ধীমান সাহা জুয়েল, দৈনিক সংবাদচর্চা সম্পাদক ও প্রকাশক মুন্না খান, দৈনিক ইয়াদ পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক তোফাজ্জাল হোসেন, অগ্রবানী পত্রিকার সম্পাদক স্বপন চৌধুরী, প্রথম আলো বন্ধুসভার সাবেক সভাপতি রাসেল আদিত্যে বক্তব্য রাখেন। এছাড়া মানববন্ধনে নারায়ণগঞ্জের বিভিন্ন পত্রিকার সম্পাদক, নারায়ণগঞ্জে কর্মরত জাতীয় ও স্থানীয় পত্রিকা অনলাইন ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।

এরপর দুপুরে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে নারায়ণগঞ্জ থেকে প্রকাশিত বহুল প্রচারিত দৈনিক যুগের চিন্তার ডিক্লেয়ারেশন (প্রামাণিকরণ) বাতিল করার প্রতিবাদে নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাব ও নারায়ণগঞ্জ জেলা সাংবাদিক ইউনিয়নের (এনইউজে) নেতৃবৃন্দ জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে  তথ্যসচিব বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করেন। 

এই বিভাগের আরো খবর