বুধবার   ১৬ অক্টোবর ২০১৯   আশ্বিন ৩০ ১৪২৬   ১৬ সফর ১৪৪১

জামিনে বেরিয়েই হামলা চালিয়েছে আদমজীর সন্ত্রাসী সেলিম মজুমদার

প্রকাশিত: ৭ অক্টোবর ২০১৯  

স্টাফ রিপোর্টার (যুগের চিন্তা ২৪) : জামিনে বেরিয়েই আদমজীর চিহ্নিত সন্ত্রাসী সেলিম মজুমদার আদমজী ইপিজেডের এক ঠিকাদারের কর্মচারীকে পিটিয়ে রক্তাক্ত করেছে। এক পর্যায়ে ওই কর্মচারীর হাত পায়ের রগ কেটে দিতে উদ্দ্যত হয় সন্ত্রাসী সেলিম। পরে সেলিমের পায়ে ধরে রক্ষায় পায় সে।  আহত ওই কর্মচারী নাম শাহজাহান (৪৫)। 

 

সে ইপিজেডের ভেতর রেমি হোল্ডিংস ফ্যাক্টরীর পরিচ্ছন্নতার কাজ করে। এবং  ইপিজেডের ঠিকাদার মাসুদুর রহমানের কর্মচারী। সোমবার সন্ধ্যা ৭ টায় আদমজীর নতুন বাজারের আজমেরী হোটেলের সামনে থেকে সেলিম মজুমদারের সহযোগী  জুয়েল, শামীম, হৃদয় জোরপূর্বক শাহজাহানকে ধরে সেলিম মজুমদারের নতুন বাজারের অফিসে (টর্চারসেল) নিয়ে যায়। 

 

এসময় সেলিম মজুমদারের সহযোগীরা শাহজাহানকে উপর্যুপরি কিল ঘুষি মারতে থাকে। বেশ কয়েকটি ঘুষি শাহজাহানের চোখে ও নাকে এসে লাগে। ফলে তাঁর চোখ ও নাক থেকে প্রচুর রক্তক্ষরণ হয়। পরে সেলিম মজুমদার চর থাপ্পড় মেরে তাঁর সহযোগী জুয়েল ও শামীমকে বলে চাকু দিয়ে শাহজাহানের পায়ের রগ কেটে দিতে। 

 

এসময় শাহজাহান সেলিম মজুমদারের পায়ে ধরে  কান্নাকাটি করে। একপর্যায়ে নতুন বাজারের অনেক লোকজন জড়ো হলে সেলিম মজুমদার শাহজাহান কে ৬নং ওয়ার্ড ছাড়ে দিতে বলে। না হলে প্রাণে  মেরে ফেলার হুমকি দেয়। 

 

এদিকে চাঁদাবাজি ও মারধরের মামলায় ২১দিন কারাভোগের পর সোমবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জ কারাগার থেকে জামিনে মুক্তি পেয়ে এলাকায় আসে। এবং সন্ধ্যায় এই হামলার ঘটনা ঘটনায়। তার এই হামলার ঘটনায় এলাকার আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। 


চরম ক্ষোভ দেখা দিয়েছে সাধারণ ব্যবসাসীদের মাঝে। তারা সন্ত্রাসী সেলিম মজুমদারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য জেলা সুযোগ্য পুলিশ সুপার হারুন অর রশীদ এর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। এ ঘটনায় আহত ব্যবসায়ি সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছে।

 

গত ১৫ সেপ্টেম্বর আদমজী ইপিজেডের এক ব্যবসায়ির দায়ের করা মামলায়  আদমজীর চিহ্নিত সন্ত্রাসী সেলিম মজুমদারকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। ওইদিন দুপুরের ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোড থেকে জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে। 

 

গ্রেপ্তারকৃত সেলিম মজুমদার সিদ্ধিরগঞ্জ থানা স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক ও সিদ্ধিরগঞ্জ থানা শ্রমিক দলের সভাপতি আসলামের ভাই তেল ব্যবসায়ি স্বপন মন্ডলের সহযোগি। চাঁদাবাজি, জবর দখল, প্রভাব বিস্তারসহ নানা অপরাধ কর্মকান্ডের অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। সেলিম মজুমদার সিদ্ধিরগঞ্জের কমদমতলী এলাকার মৃত মোহাম্মদ আলীর ছেলে।

 

এদিকে গ্রেপ্তারের পর ওই দিন বিকালে পুলিশ সুপারের কার্যালয়ের সামনে পুলিশ সুপার হারুন অর রশিদ বিপিএম, পিপিএম (বার) প্রেস বিফ্রিং করে বলেন, চাঁদার দাবিতে ১৪ সেপ্টেম্বর আদমজী ইপিজেডের ব্যবসায়ীর উপর হামলা করে মারধর করে সেলিম মজুমদার। সে এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী।

 

এ ঘটনায় আহত ব্যবসায়ীদের একজন বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন। এছাড়াও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ছবি বিকৃতির মামলাসহ বিভিন্ন অপরাধে তার বিরুদ্ধে ৬ থেকে৭টি মামলা রয়েছে। এছাড়া এলাকায় বিভিন্ন চাঁদাবাজির সাথে জড়িত সে। 

 

উল্লেখ, চাঁদার দাবিতে শনিবার দুপুরে আদমজী ইপিজেডের ঠিকাদার মাসুদুর রহমানের উপর সন্ত্রাসী সেলিম মজুমদারের নেতৃত্বে হামলা চালিয়ে কয়েকজনকে মারধর করা হয়। এ ঘটনায় আহত ব্যবসায়ি বাদী হয়ে সেলিম মজুমদারকে প্রধান আসামী করে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। এরআগে চাঁদা না পেয়ে গত ২৫ আগস্ট ৩০০ শ্রমিকের খাবার ছিনিয়ে নিয়ে যায় সেলিম বাহিনী।

 

এ বিষয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পুলিশের পরিদর্শক (তদন্ত) আজিজুল ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ভুক্তভোগী চিকিৎসা শেষে থানায় এসেছেন। বর্তমানে তিনি থানায় রয়েছেন। এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা পক্রিয়াধীন রয়েছে।  


 

এই বিভাগের আরো খবর