সোমবার   ২৫ মার্চ ২০১৯   চৈত্র ১১ ১৪২৫   ১৮ রজব ১৪৪০

জাতীয় নির্বাচনের রেশ উপজেলাতেও, সরেননি কালাম-ইকবাল

প্রকাশিত: ১৩ মার্চ ২০১৯  

স্টাফ রিপোর্টার (যুগের চিন্তা ২৪) : ৫ম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের ৪র্থ পর্যায়ে নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার, রূপগঞ্জ ও সোনারগাঁ উপজেলায় ভোটগ্রহণ ৩১ মার্চ।  উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে ৭ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে  ১২ জন এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৯ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন।

জাতীয় নির্বাচনের রেশ আর প্রভাব বিস্তারের বিষয়টি এড়ায়নি উপজেলার নির্বাচনেও। আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থী চূড়ান্ত করার পরও কৌশলে নির্বাচনে সাংসদের পক্ষে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে রয়েছেন নির্বাচনী মাঠে।

আড়াইহাজার উপজেলায়  আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মো.শাহজালাল মনোনয়নপত্র জমা দিলেও শেষ পর্যন্ত দলীয় সমর্থন পাওয়া মো.মুজাহিদুর রহমান হেলো সরকারকে সমর্থন জানিয়ে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নিয়েছেন।

হেলো সরকার একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ইকবাল পারভেজের পক্ষে কাজ করেছেন। অপরদিকে শাহজালাল ছিলেন বর্তমান এমপি নজরুল ইসলাম বাবুর পক্ষে। শাহজালাল মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নিলেও নির্ভার থাকতে পারছেননা হেলো সরকার।

কেননা, আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন উপজেলা যুবলীগের সহসভাপতি মা. ইকবাল হোসেন মোল্লা । ইকবাল বর্তমান এমপি নজরুল ইসলাম বাবুর আপন ভাগ্নে। তাই নির্বাচনে এ উপজেলায় উত্তাপ ছড়ানোর আশঙ্কা করছেন কেউ কেউ।

আড়াইহাজারের মতো  সোনারগাঁয়েও এবার উপজেলা নির্বাচনে সরগরম থাকতে পারে। কেননা, এ উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে দুজন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী মো. মোশারফ হোসেনের সাথে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী স্বতন্ত্র প্রার্থী মাহফুজুর রহমান কালাম।

কালাম একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বর্তমান এমপি লিয়াকত হোসেন খোকাকে সমর্থন করে তার পক্ষে কাজ করেছিলেন। অপরদিকে মো.মোশারফ হোসেন আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়পত্র দাখিল করা আব্দুল্লাহ আল কায়সারের চাচা। এনিয়ে দুপক্ষই আলাদা দুটো বলয়ে রাজনীতি করেন। উত্তাপ ছড়াতে পারে এখানেও।  

রূপগঞ্জ উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে লড়বেন তিনজন। আওয়ামীলীগ সমর্থিত প্রার্থী মো.শাহজাহান ভূইয়া, রূপগঞ্জে স্বতন্ত্র প্রার্থী মো.তাবিবুল কাদির তমাল এবং ন্যাশনাল পিপলস পার্টি (এনপিপি) সমর্থিত প্রার্থী এস আলমের মধ্যেও নির্বাচনী প্রতিদ্বন্দ্বিতা কেউ কাউকে ছাড় দেবার মতো নয়।

আড়াইহাজারে ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে মো.রফিকুল ইসলাম ও ঝর্না আক্তার একমাত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশ নেবেন। এ উপজেলায় ১১৩ ভোটকেন্দ্রে ৭১৭টি ভোট কেন্দ্র। মোট ভোটার সংখ্যা ৪ লাখ ২৩ হাজার ৬১২ জন। যার মধ্যে পুরুষ ভোটার সংখ্যা ১ লাখ ৩৯ হাজার ৭৪৫ এবং মহিলা ভোটার সংখ্যা ২ লাখ ৮৩ হাজার ৮৬৭ জন।

সোনারগাঁয়ে ভাইস চেয়ারম্যান পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী ৬ জন। তারা হলেন, এম জাহাঙ্গীর হোসেন ভূইয়া, মো.বাবুল হোসেন, মো.আবু নাইম, মো.মনির হোসেন, মো.শাহজালাল মিয়া, মো.শাহ আলম ।  মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৪ জন। তারা হলেন, মাহমুদা আক্তার, মোসাঃ ফরিদা পারভিন, মোসা.নাসিমা আক্তার, হেলেনা আক্তার। ১১৮ ভোটকেন্দ্রে ৮৭৬টি ভোট কক্ষ। মোট ভোটার সংখ্যা ৪ লাখ ৫১ হাজার ৪২ জন। যার মধ্যে পুরুষ ভোটার সংখ্যা ১ লাখ ৪৭ হাজার ১৭০ এবং মহিলা ভোটার সংখ্যা ৩ লাখ ৩ হাজার ৮৭২ জন।

রূপগঞ্জে ভাইস চেয়ারম্যান পদে  স্বতন্ত্র প্রার্থী ৫ জন। তারা হলেন, মোহাম্মদ স্বপন ভূইয়া, মো. সোহেল আহম্মদ ভুঞা, মোতাহার হোসেন নাদিম, মো. আব্দুল আলিম সরকার, মো.হাবিবুর রহমান হারেজ। মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী ৪ জন।

তারা হলেন, নাসরিন আক্তার চম্পা, মোসা.হ্যাপি বেগম, সৈয়দা ফেরদৌসী আলম নীলা, শায়লা তাহসিন। উপজেলার ১২৭ ভোটকেন্দ্রে ৮৭৫টি ভোট কক্ষ। মোট ভোটার সংখ্যা ৫ লাখ ২৮ হাজার ৩৪৩ জন। যার মধ্যে পুরুষ ভোটার সংখ্যা ১ লাখ ৭৮ হাজার ৪৫৫ এবং মহিলা ভোটার সংখ্যা ৩ লাখ ৪৯ হাজার ৮৮৮ জন।

 

এই বিভাগের আরো খবর