সোমবার   ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯   ভাদ্র ৩১ ১৪২৬   ১৬ মুহররম ১৪৪১

ছয়মাসে দেখেছি না’গঞ্জের সাংবাদিকরা সত্য বলার সাহস রাখে:এসপি হারুন

প্রকাশিত: ১৮ মে ২০১৯  

স্টাফ রিপোর্টার (যুগেরচিন্তা ২৪) : নারায়ণগঞ্জের সাংবাদিকদের কার্যক্রমের প্রশংসা করে পুলিশ সুপার মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ বলেন, নারায়ণগঞ্জে আমার ছয় মাসের চাকুরীর দায়িত্বাকালীন স্বল্প সময়ে দেখতে পেরেছি  নারায়ণগঞ্জ এর সাংবাদিকরা সত্যকে সত্য ও মিথ্যাকে মিথ্যা বলার সাহস রাখে। আপনাদের সত্য ও ন্যায়ের পথে যে সাংবাদিকতা, সেটি আমাদের উৎসাহিত করে। আমিও ভুল করতে পারি, আমার এডিশনাল এসপিও ভুল করতে পারে। ভালো কাজ করলে প্রশংসা করবেন। ভুল কিছু করলে সেটাও জানাবেন।

 

শনিবার (১৮ মে)  সকাল সাড়ে ১১টায় নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের হানিফ খান মিলনায়তনে নারায়ণগঞ্জ জেলা সাংবাদিক ইউনিয়নের (এনইউজে) আয়োজনে তিনদিনব্যাপী সাংবাদিকতা বিষয়ক প্রশিক্ষণ কর্মশালার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

 

পুলিশ সুপার আরো বলেন, নারায়ণগঞ্জের মানুষ ও সাংবাদিকবৃন্দ যেভাবে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীকে সহায়তা করছেন এভাবেই সহযোগিতা অব্যাহত থাকলে  আমাদের যেই কার্যক্রম মাদক, সন্ত্রাস আর ভূমিদস্যুদের বিরুদ্ধে চলছে সেই অভিযান চলবেই। বাাংলাদেশ পুলিশ ও সাংবাদিক একই সূত্রে গাঁথা। আমরা কারো কাছেই মাথা নত করবো না।

 

তিনি বলেন, নারায়ণগঞ্জে সাংবাদিক এখন অনেক। কিন্তু আসলে সব সাংবাদিকরা বস্তু নিষ্ঠ সাংবাদিকতা করতে জানেন কিনা। বস্তু নিষ্ঠ সাংবাদিকতা করতে প্রশিক্ষন জরুরী। সাংবাদিকরা মুক্তিযুদ্ধের আগে পূর্বে সকল আন্দোলনেই অসাধারণ ভূমিকা পালন করেছেন। তখনকার সময়ের সাংবাদিকরা তাদের নিজ হাতে কলম ধরে তাদের লেখনীর মাধ্যমে  মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে কথা বলে গনজাগ্রত করে ছিলেন। তাই এই কর্মশালার মাধ্যমে পূর্বের সাংবাদিকতার এই ধারা নতুন প্রজন্মের সাংবাদিকদের মধ্যে রেখে যেতে হবে।

 

সাংবাদিকতার পরিচয়ে অপকর্ম করে বেড়ায় এমন কিছু লোকের উদাহরণ টেনে এসপি হারুন বলেন, কিছুদিন আগে রূপগঞ্জ থেকে ৫ জন ভুয়া সাংবাদিক আমরা ধরেছি। তারা নিয়ম বহির্ভূতভাবে পত্রিকা বের করেছে। যে তিনটি পত্রিকার নাম বলল তার খবর নিয়ে দেখলাম, ৩টা পত্রিকাই আসলে ভুয়া। এমন নামে কোন পত্রিকা নেই। এসব হলুদ সাংবাদিকরা আসল সাংবাদিক পেশাকে কলুষিত করে। আপনাদের পেশাকে নষ্ট করার জন্য তারা এই কাজটি করে চলছে। পূর্বে আমাদের খবর জানার জন্য আজকের মতো এতো সুযোগ-সুবিধা ছিল না। হয়ত রেডিও আর নয়ত সকাল সকাল পত্রিকা নিতে হতো। এখন অনেক মাধ্যম আছে। কিন্তু এই মাধ্যমগুলোর যেন কোন অপব্যবহার না হয় সেই দিকেও খেয়াল রাখতে হবে।

 

এসপি হারুন সবাইকে সতর্ক করে  বলেন, একাত্তরের পলায়নকারীরা এখনো ঘাপটি মেরে বসে আছেন তারা জামায়াত-শিবিরের আড়ালে রেখে অসংঙ্গতি ও অরাজকতা সৃষ্টি করার পায়তারা করছে। ইতিমধ্যে বিভিন্ন দেশে জঙ্গি হামলা হয়েছে। বাংলাদেশেও এমন হামলা হতে পারে শুনেছি। কথা সত্য কিনা জানি না হয়ত বাংলাদেশে এমন ঘটনা কোথাও ঘটবে না। কিন্তু তারপরেও  আমরা আইন শৃঙ্খলাবাহিনী যেকোন সমস্যা মোকাবেলার জন্য প্রস্তুত আছি। আমি মনে করি বাংলাদেশের আইন শৃঙ্খলা বাহিনী যেকোন দেশের আইন শৃঙ্খলা বাহিনী যথেষ্ট সামর্থ্যবান আছে।

 

বাংলাদেশ প্রেস ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক ড.জাফর ওয়াজেদের সভাপতিত্বে ও নারায়ণগঞ্জ জেলা সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক আফজাল হোসেন পন্টির সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্যে রাখেন, বাংলাদেশ প্রেস ইনস্টিটিউটের সহকারী পরিচালক (প্রশাসন) জাকির হোসেন, নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি অ্যাডভোকেট মাহবুবুর রহমান মাসুম, সাবেক সভাপতি রুমন রেজা, সাবেক সাধারণ সম্পাদক শরিফ উদ্দীন সবুজ, নারায়ণগঞ্জ জেলা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি আব্দুস সালাম। 
 

এই বিভাগের আরো খবর