বৃহস্পতিবার   ১২ ডিসেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ২৮ ১৪২৬   ১৪ রবিউস সানি ১৪৪১

চট্টগ্রামে বিকেএমইএ-এর নিজস্ব ভবনের জন্য ৭ কোটি টাকা বরাদ্দ   

প্রকাশিত: ১৬ নভেম্বর ২০১৯  

যুগের চিন্তা ২৪ : নীট গার্মেন্টস ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন বিকেএমইএ-এর চট্টগ্রামে নিজস্ব ভবন নির্মাণের জন্য ৭ কোটি টাকা বরাদ্দ প্রাথমিকভাবে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। আগামী ৩০ ডিসেম্বর বিকেএমইএ-এর বার্ষিক সাধারণ সভায় এর চূড়ান্ত অনুমোদন প্রদান করা হবে। বরাদ্দকৃত অর্থ বিকেএমইএ এর চট্রগ্রাম শাখার জন্য ব্যাংকে এফডিআর করা রাখা হবে।


 
শনিবার (১৬ নভেম্বর) বিকেল ৫টায় চট্টগ্রামের পতেঙ্গায় বুট ক্লাবে অনুষ্ঠিত বিকেএমইএ-এর পরিচালনা পর্ষদের তৃতীয় মাসিক সভায় এ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।


 
সংগঠনের সভাপতি ও নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য সেলিম ওসমানের সভাপতিত্বে মাসিক সভায় উপস্থিত ছিলেন, প্রথম সহসভাপতি মোহাম্মদ হাতেম, দ্বিতীয় সহসভাপতি অমল পোদ্দার, তৃতীয় সহসভাপতি গহর সিরাজ জামিল, সহসভাপতি (অর্থ) মোর্শেদ সারোয়ার সোহেল, পরিচালক আবু আহম্মেদ সিদ্দিক, মনসুর আহম্মেদ, ফজলে শামীম এহসান, জিএম ফারুক, মোস্তফা জামাল পাশা, আশিকুর রহমান, খন্দকার সাইফুল ইসলাম, মোস্তফা মনোয়ার ভূইয়া, তারিক আজিজ, রাজিব দাস সুজয়, শাহাদাৎ হোসেন ভূইয়া সাজনু, সেলিম মাহবুব নাসিমুল তারিক মঈন, রতন কুমার সাহা, নন্দ দুলাল সাহা, কবির হোসেন, মোহাম্মদ হাসান, আহম্মদ নূর ফয়সাল, মির্জা মোহাম্মদ আকবর আলী চৌধুরী, ইমরান কাদির তূর্য, মজিবুর রহমান।


 
এর আগে বিকেএমইএর দ্বিতীয় মাসিক সভায় চট্টগ্রামে নিজস্ব অফিস স্থাপনের জন্য ৫ কোটি টাকার প্রাথমিক বরাদ্দের নেওয়া হয়েছিল। কিন্তু শনিবার অফিস স্থাপনের জন্য বেশ কয়েকটি ফ্লোর পরিদর্শন করেন বোর্ডের কর্মকর্তারা। সেগুলো সুবিধাজনক না হওয়ায় বোর্ডের মাসিক সভায় নিজস্ব জমিতে নিজস্ব কার্যালয় নির্মাণের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় এবং সর্বসম্মতিক্রমে অফিস নির্মাণের জন্য ৫ কোটি টাকা থেকে বৃদ্ধি করে ৭ কোটি টাকা বরাদ্দ ঘোষণা করা হয়। যা ব্যাংকে এফডিআর করে রাখা হবে। 

 

আশা করা হয় চট্টগ্রামে নিজস্ব ভবনের ব্যাপারে ২০২০ সালের মার্চ মাসের মধ্যে ভবন নির্মাণের জন্য একটি ফলাফল পাওয়া  যাবে এবং ডিসেম্বর মাসের মধ্যে ভবন নির্মাণের কাজ শুরু করতে পারবে।


 
এছাড়াও বিকেএমইএর কার্যক্রম চট্টগ্রামে আরও গতিশীল করার ব্যাপারে তাগিদ দিয়েছেন সংগঠনটির সভাপতি সেলিম ওসমান এমপি। সে জন্য চট্টগ্রামে বিকেএমইএ এর সদস্য সংখ্যা বৃদ্ধি করার ব্যাপারে উদ্যোগী হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি। আর চট্টগ্রাম অফিসের কর্মকর্তাদের জন্য একটি গাড়ি কেনার অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। 


 
অপরদিকে নতুন বাজার সম্প্রসারণে বিকেএমই-এর পক্ষ থেকে পৃথক দুটি নীট ওয়্যার মেলার আয়োজন করা হবে। যার মধ্যে চলতি বছরের ১৮ থেকে ২০ ডিসেম্বর সৌদি আরবের জেদ্দা এবং ২০২০ সালের ২৮-৩০ মার্চ পর্যন্ত কাতারে অনুষ্ঠিত হবে।


 
উল্লেখ্য, গত ২ নভেম্বর বিকেএমই-এর ঢাকা কার্যালয়ে দ্বিতীয় মাসিক সভায় সর্বসম্মতিক্রমে চট্টগ্রামে বিকেএমইএ-এর একটি নিজস্ব কার্যালয় স্থাপনের জন্য ৫ কোটি টাকা বরাদ্দ অনুমোদ করা হয়েছে যা পরবর্তী এজিএম’এ চূড়ান্ত অনুমোদন করা হবে। এছাড়াও আসন্ন এজিএম’এ বিকেএমইএ এর সাধারণ সকল সদস্য  স্বপরিবারে এসে আনন্দ উৎসব করতে পারে সে জন্য আরও ১ কোটি টাকার বরাদ্দ অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও প্রথম সভায় গৃহীত সকল সিদ্ধান্তের অনুমোদন করা হয়। 

এই বিভাগের আরো খবর