সোমবার   ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯   ভাদ্র ৩১ ১৪২৬   ১৬ মুহররম ১৪৪১

খলনায়কের অনেক চাকচিক্য থাকে : শামীম ওসমান

প্রকাশিত: ২২ মে ২০১৯  

স্টাফ রিপোর্টার (যুগের চিন্তা ২৪) : নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সাংসদ শামীম ওসমান বলেছেন, নায়ক খলনায়ক অনেক হয়। খলনায়কের অনেক চাকচিক্য থাকে। কিন্তু মিথ্যা মিথ্যাই, সত্য সত্যই। যে যত চেষ্টা করুক না কেন একটা সময়ে সত্য প্রতিষ্ঠিত হয়ই। 

 

বুধবার (২২ মে) বাদ আছর নগরীর বাঁধন কমিউনিটি সেন্টারে জেলা আইনজীবী সমিতির দোয়া ও ইফতার মাহফিলের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রায় ৭০০ আইনজীবী অংশগ্রহণ করেন। 

 

শামীম ওসমান আরো বলেন, কোন একটি জায়গা থেকে ঘন্টা বাজানো দরকার। আমি অনুরোধ করবো আইনের স্বার্থে আপনারা সকল আইনজীবীরা একসাথে থাকবেন। বিনা কারণে বিপরীত দলের কোন আইনজীবীর প্রতিও যদি অন্যায় করা হয় তবে সকল আইনজীবীরা আপনার একত্রিত হয়ে পাশে দাঁড়ান। আমরা আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা করতে চাই। কে সহীহ আছে কে সহীহ নেই সেটি তাঁর অন্তরই বলে দেবে। 

 

শামীম ওসমান বলেন, যারা জজ সাহেব তারা আল্লাহর প্রতিনিধিত্ব করেন। সে কারণে আমি তাদের আলাদাভাবে সম্মান করি। প্রটোকল মেইনটেইন করিনা। ব্যক্তিগতভাবে আমি এই পেশাটাকে প্রচন্ডভাবে সম্মান করি এবং এটি থেকে দূরে থাকার চেষ্টা করি। আমি জজসাহেবদের প্রভাবিত করতে চাইনা। আগেও চাইনি এখনো চাইনা। নারায়ণগঞ্জের মানুষ এবং আইনজীবীরা যেভাবে খুশি জজসাহেবদের প্রতি এরজন্য আমি তাদের প্রতি কৃতজ্ঞ। 

 

তিনি আরো বলেন, আমিও আইনপাশ করেছি। তবে প্র্যাকটিস করার সুযোগ হয় নাই। আমি সবার উদ্দেশ্যে বলতে চাই, ১৯৮৮ সালে আমি যখন গ্রেপ্তার হয়েছিলাম তখন সুপ্রীমকোর্টে নিজের মামলা নিজেই পরিচালনা করেছি। সুপ্রীম কোর্টের চীফ জাস্টিস আমাকে সরি‌্য বলেছিলেন, তিনি আমার কথার জবার দিতে পারেন নাই। তিনি আরেকটি কথা বলেছিলেন, শতভাগ ন্যায্য বিচার করার ক্ষমতা একমাত্র সৃষ্টিকর্তা ছাড়া আর কারো নাই। 
শামীম ওসমান বলেন, স্বাক্ষীর অভাবে একটি মানুষ অপরাধ করে মুক্তি পেয়ে যায়। কিন্তু একটি নিরপরাধ মানুষ যাতে একটি ঘন্টার জন্যও সাজা ভোগ কিংবা নির্যাতনের স্বীকার না হতে হয়। আমাদের দেশে স্যু নেই। কিন্তু উন্নত দেশে স্যু হয়। মানুষের আইনী অধিকার নিয়ে কাজ করা দরকার। 

 

বড় ঈদ জামাত আয়োজনের বিষয়টি টেনে তিনি সবার উদ্দেশ্যে বলেন, ‘নারায়ণগঞ্জের ইতিহাসে গতবার তৃতীয় বৃহত্তম ঈদের জামাত করেছিলাম। এবার সবচেয়ে সুন্দর ও আকর্ষণীয় ঈদের জামাত আয়োজন করতে চাই। আমার ইচ্ছা আছে পবিত্রা মদিনা শরীফের আদলে স্টিল স্ট্রাকচার দিয়ে একেএম সামসুজ্জোহা স্টেডিয়াম, মেইন রোড, ঈদগাহ সবগুলোকে একটি জায়গায় নিয়ে আসার চেষ্টা করছি। এবং এর ভেতরে এমন একটি পরিবেশ সৃষ্টি করা হবে যাতে মানুষ নামাজ পড়ার পর অনুভব করে আমি নামাজ পড়লাম।’ 

 

আইনজীবী সমিতিরি সভাপতি এড.হাসান ফেরদৌস জুয়েলের সভাপতিত্বে সাধারণ সম্পদক সম্পাদক মুহসিন মিয়ার সঞ্চালনায় ইফতার মাহফিলে জেলা ও দায়রা জজ মো.আনিসুর রহমান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ‘ক’ সার্কেল মেহেদী ইমরান সিদ্দিকী, পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) ওয়াজেদ আলী খোকন,  নারায়ণগঞ্জ চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রির সভাপতি খালেদ হায়দার খান কাজল, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এড. আবু হাসনাত শহীদ মো.বাদল, মহানগর  আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এড. খোকন সাহা, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহ নিজাম, আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি এড.আব্দুর রশিদ, এড.বারী ভূঁইয়া প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
 

এই বিভাগের আরো খবর