বৃহস্পতিবার   ০২ এপ্রিল ২০২০   চৈত্র ১৯ ১৪২৬   ০৮ শা'বান ১৪৪১

কালিরবাজারে ক্রেতা সেজে ৭০ ভরি স্বর্ণ চুরি, গ্রেফতার ৪

প্রকাশিত: ২৫ জানুয়ারি ২০২০  

স্টাফ রিপোর্টার (যুগের চিন্তা ২৪) : নগরীরর কালিরবাজার এলাকার একটি অলংকারের দোকান থেকে বোরকা পরে ক্রেতা সেজে ৭০ ভরি স্বর্ণ চুরির ঘটনায় তিন নারীসহ চারজনকে গ্রেফতার করেছে জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ। গ্রেফতারকৃতরা হলেন- ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাঞ্ছারামপুরের আইয়ুবপুরের মৃত আব্দুল হালিমের ছেলে মো. সালাহউদ্দিন (৩৪), হীরা পারভীন (৩৫), সামিনা বেগম (৪৮) ও তাসলিমা বেগম (৪০)। 

 


শনিবার (২৫ জানুয়ারি) দুপুরে তিন নারী চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আহমেদ হুমায়ুন কবিরের আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দিয়েছে। একই দিন সাতদিনের রিমান্ড চেয়ে চোরাই স্বর্ণ ক্রয়-বিক্রয়ের একটি চক্রের সাথে জড়িত মো. সালাহউদ্দিকে আদালতে প্রেরণ করেছে জেলা গোয়েন্দা ডিবি পুলিশ। কোর্ট পুলিশের পরিদর্শক মো. আসাদুজ্জামান  এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

 


তিনি জানান, গত ৭ নভেম্বর কালিরবাজারের এসিধর রোডের আল তাজিম জুয়েলার্সে চুরির ঘটনার মামলায় সিসি ক্যামেরার ফুটেজ ও তথ্য প্রযুক্তির সাহায্যে বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে চোরাই চক্রের ওই চারজনকে গ্রেফতার এবং চুরি হওয়া স্বর্ণ ও স্বর্ণ বিক্রির টাকা উদ্ধার করে ডিবি পুলিশ।

 

পরে গত ২৪ জানুয়ারি চোরাই স্বর্ণের ক্রেতা ঢাকার যাত্রাবাড়ি থানার দয়াগঞ্জের সালাউদ্দিন জুয়েলার্সের মালিক সালাহউদ্দিনকে গ্রেফতার করা হয়। আসামি সালাহউদ্দিন চোরাই স্বর্ণ ক্রয়-বিক্রয়ের একটি চক্রের সাথে জড়িত। 

 

উল্লেখ্য, গত ৭ নভেম্বর আল তাজিম জুয়েলার্সে চুরির ঘটনা ঘটে। বোরকা পড়ে ক্রেতা সেজে ওই চারজন ৯০টি স্বর্ণের চেইন যার ওজন ৭০ ভরি চুরি করে নিয়ে যায়। পরে সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে চোরদের শনাক্ত করেন দোকান মালিক। এ ঘটনায় সদর মডেল থানায় মামলা করলে তদন্তে নামে ডিবি।

 

তদন্তের এক পর্যায়ে যশোরের অভয়নগর থানা পুলিশের সহায়তায় গত ২৩ জানুয়ারি সকালে অভয়নগরের নোয়াপাড়া রেলস্টেশন থেকে আসামি হীরা পারভীনকে গ্রেফতার করে ডিবি পুলিশ। হীরা পারভীনের দেওয়া তথ্যমতে নোয়াপাড়া শিমুলতলী পালপাড়া এলাকা থেকে সামিনা বেগম ও তাসলিমা বেগমকে গ্রেফতার করা হয়।

 

সামিনা বেগমের বাড়ির তোষকের নিচ থেকে স্বর্ণ বিক্রির ২ লাখ ৭৫ হাজার টাকা জব্দ করা হয়। পরে গত ২৪ জানুয়ারি চোরাই স্বর্ণের ক্রেতা ঢাকার যাত্রাবাড়ি থানার দয়াগঞ্জের সালাউদ্দিন জুয়েলার্সের মালিক সালাহউদ্দিনকে গ্রেফতার করা হয়। এ সময় ২১ ভরি গলিত স্বর্ণ ও চোরাই স্বর্ণ বিক্রির নগদ ৯৫ হাজার টাকা জব্দ করা হয়।
 

এই বিভাগের আরো খবর