সোমবার   ০৬ এপ্রিল ২০২০   চৈত্র ২৩ ১৪২৬   ১২ শা'বান ১৪৪১

আজ মহান স্বাধীনতা দিবস

এবার ‘করোনা’ জয়ের সংগ্রাম

প্রকাশিত: ২৬ মার্চ ২০২০  

ইমতিয়াজ আহমেদ : ‘এবারের সংগ্রাম মুক্তির সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম।’ ৭১ এর ৭ মার্চেই বঙ্গবন্ধু মহান স্বাধীনতার ঘোষনা দিয়ে ছিলেন। এক নদী রক্ত পেরিয়ে দেশকে স্বাধীন করেছিল বীর বাঙালী। এবার গোটা জাতি পড়েছে ‘করোনা’ ভাইরাসের কবলে। 

এই সংকট থেকে বাঁচতে আমাদের এবারের সংগ্রাম হবে করোনা র বিরুদ্ধে গোটা জাতির সম্মিলত সংগ্রাম। বাঙালী বীরের জাতি। এবার ক্ষমতায় জাতির জনকের সুযোগ্য কন্যা দেশরত্ন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।  শেখ হাসিনার আহবানে গোটা জাতি করোনা মোকাবেলায় ঝাঁপিয়ে পড়েছে। 

সেদিন বঙ্গবন্ধুর পরোক্ষা ঘোষনাতেই পাকিস্তানী সামরিক জান্তার ঘুম হারাম হয়ে গিয়েছিল। জাতিরজনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে সারাক্ষণ আতঙ্কে থাকতেন পাকিস্তানী সামরিক জান্তা। ২৫ মার্চ রাতের আঁধারে সামরিক জান্তা হিংস্র শার্দুলের মত মারণাস্ত্র নিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়ে ঘুমন্ত বাঙালীদের জন্য। 

রাতের আঁধারে রাজপথ রক্তে রঞ্জিত হয়। পরদিন বাঙালীর মুক্তির সংগ্রামের চূড়ান্ত  ঘোষনা মহান স্বাধীনতার ঘোষনা দেন বঙ্গবন্ধু। ৭১ এর পর থেকে ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা দিবস হিসেবে পালিত হয়ে আসছে। এদিনটি পরাধীনতার শৃঙ্খল থেকে বাঙালী জাতির মুক্তির পথ রচনার দিন। 

বঙ্গবন্ধুর ঘোষনায় গোটা জাতি সেদিন স্বাধীনতা যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়ে। দীর্ঘ ৯ মাস মরণপণ লড়াই করে দেশকে পরাধীনতার শৃংখল থেকে মুক্ত করে বাঙলার দামাল ছেলেরা। এবারো জাতির ক্রান্তিলগ্নে করোনার বিরুদ্ধে আরেকটি যুদ্ধে লিপ্ত হবে গোটা জাতি। 


এমন বিশ্লেষন বোদ্ধামহলের। তাদের মতে, চারদিকে করোনা ভাইরাসের ফাঁদ। বঙ্গবন্ধুর আদর্শে গড়া বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ ক্ষমতায়। বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য কন্যা দেশরত্ন শেখ হাসিনা দেশের প্রধানমন্ত্রী। যিনি কখনো অন্যায়, অপশক্তির কাছে হার মানেননি। শত ঝড়-ঝঞ্জার পথ পাড়ি দিয়েছেন স্বীয় যোগ্যতায়। মৃত্যুকে খুব কাছ থেকেও দেখেছেন তিনি। 


২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় মৃত্যুর কাছাকাছি গিয়েও নেতাকর্মীদের দোয়ায় তিনি ফিরে এসেছেন। তাছাড়া তাঁর হারোনোর কিছু নেই। এবার গোটা জাতি করোনার বিরুদ্ধে মাঠে নেমেছেন। নারায়ণগঞ্জে গণপরিবহন বন্ধ। মার্কেট বন্ধ।  হোটেল-রেস্তোরা বন্ধ। 


ফুটপাতে নেই চায়ের দোকান। তবে শহরের নুর মসজিদের গলিতে এক যুবককে দেখা গেল হাতে কয়েকটি সিগারেটের প্যাকেট। চুপি চুপি সে সিগারেট বিক্রি করছে। প্রেসক্লাব ভবনের সামনে তাকে ডেকে নিয়ে দুই যুবক সিগারেট কিনে নিল। দৃশ্যটি দেখে পাঞ্জাবী বিক্রেতা বললো, সবাই সুযোগ নেয়। 


শহরে লোকজনের চলাচল খুব কম। কমে গেছে মাস্কের দাম। অনেকে ফ্রি মাস্ক বিতরণ করছেন। এদিকে, প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসনের কন্ট্রোল রুম চালু করা হয়েছে। ২৫ মার্চ বুধবার থেকে নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের ২০৪ নাম্বার কক্ষে এই কন্ট্রোল রুম চালু করা হয়। 


সেই সাথে করোনা ভাইরাস সংক্রান্ত যে কোনো তথ্য প্রদানের জন্য নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসনের এই কন্ট্রোল রুমের নাম্বারে যোগাযোগ করার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে। হট লাইন নাম্বারগুলো হলো ০২-৭৬৪৬৭৬৭, ০১৭০৮-৪৪২২৭৯, ০১৭১১-৮২৮৯৪২। গতকাল র‌্যাব-১১ এর জীবাণুনাশক স্প্রে করার ঘটনা শহরবাসীর প্রশংসা কুড়িয়েছে। 


র‌্যাব বাহিনী গতকাল শহরের চাষাড়া মোড় থেকে শুরু করে শহরের গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টগুলোতে রাস্তাগাট, গণপরিবহন, বিভিন্ন ভবনের চিপাচাপা, গলি ও নালায় জীবাণুনাশক স্প্রে করা হচ্ছে। এ ব্যাপারে র‌্যাব-১১ এর উপপরিচালক অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আলেপ উদ্দিন জানান, আমরা করোনা প্রতিরোধে সর্বত্র জীবাণুনাশক স্প্রে করছি। 

রাস্তায় বিভিন্ন গণপরিবহন জীবাণুনাশক করা হচ্ছে। আমরা  জনসমাগম বন্ধ করে দিচ্ছি। মানুষকে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার জন্য সতর্ক করছি। বিদেশ ফেরত কেহ হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার নিয়ম না মানলে আমাদেরকে জানানোর জন্য বলছি। আমাদেরকে জানালে আমরা ব্যবস্থা নিব। 
 
 

এই বিভাগের আরো খবর