রোববার   ১৭ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ২ ১৪২৬   ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

এখন আর কিছু করতেও পারতেছিনা : শামীম ওসমান

প্রকাশিত: ৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

স্টাফ রিপোর্টার (যুগের চিন্তা ২৪) : নারায়ণগঞ্জ-৪ শামীম ওসমান বলেছেন, নারায়ণগঞ্জের রাজনীতিতে নায়ককে খলনায়ক বানানো হয়, অপরদিকে খলনায়ককে বানানো হয় নায়ক। জাতীয়ভাবে খেলা হচ্ছে এবং নারায়ণগঞ্জও তার ভেতরে। তিনি বলেন, এটি নিয়ে আমি এখনো কথা বলিনা। আমি সবসময় চেষ্টা করি সরকারের ভাবমূর্তি রক্ষা করতে। কারণ সরকার, আমাদের দল ক্ষমতায় আছে। এখন আর কিছু করতেও পারতেছিনা। যেটা করলে অনেকের ফাঁসি দেয়ার প্রয়োজন হয়না। অনেকের এমন দোষ আছে যেগুলোর প্রমাণ দিলে তার বাসায় বউ বাচ্চাদের সামনে মুখ দেখাতে পারবে না। তার আগেই তা তারা ফাঁসি দিয়ে ফেলবে। আমরা তা করবো না। এই সকল কাজ জামাত বিএনপিদের। আমাদের না। আমাদের কাজ যারা গেম খেলতে চায় তাদের বোঝানো নারায়ণগঞ্জ আওয়ামী লীগের ঘাঁটি। 

 

মঙ্গলবার (৩ সেপ্টেম্বর) বিকেলে নারায়ণগঞ্জ রাইফেল ক্লাবে নেতাকর্মীদের নিয়ে এক জরুরি সভায় তিনি এসব কথা বলেন। 

 

শামীম ওসমান আরো বলেন, বাংলাদেশের রাজনীতি নিয়ে গভীর ষড়যন্ত্র চলছে। এই ষড়যন্ত্রের প্রথম টার্গেট করা হয় নারায়ণগঞ্জকে। তার কারণ এই জেলার উপর দিয়ে পূর্বাঞ্চলের চলাচল। আল্লাহর নামে কসম করে বললাম বিনা কারণে যদি কেউ আমার কর্মীদের উপর হাত দেয় আমি তা সহ্য করবো না।

 
শামীম ওসমান প্রশ্ন রেখে বলেন, সিদ্ধেরগঞ্জে ৭৪ জন নেতা কর্মির বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা হয়েছে। কে দিল এত মামলা। মামলার আসামিদের মধ্যে অধিকাংশই ব্যবসায়ী। যখন যেটা যেখানে জানানো দরকার আমরা ওইখানে তা জানাচ্ছি। কোন ভয়ের কারণ নেই। 

শামীম ওসমান বলেন, আমি যদি কালকে বিএনপিতে যাই সবাই আমাকে থুতু দিবে। সেই সাথে সবাই আমাকে বেঈমান বলবে। 

 

শামীম ওসমান বলেন, আমাদের দলের কেউ কেউ মনে করেন সে অনেক ক্ষমতাশালী। কিন্তু রাস্তায় নামলে তাকে খুঁজে পাওয়া যায় না। আগামী ৭ সেপ্টেম্বর বিকেল ৩ টায় শহীদ মিনারে বিশাল আকারে সমাবেশ হবে। দেখা যাবে কোন নেতা কত লোক নিয়ে আসতে পারে। সেদিন মানুষ যেন খানপুর পর্যন্ত বসার জায়গা না পায়। এখন কাউন্সিল-ফাউন্সিল নিয়ে মাথা গরম কইরেন না। আমরা নতুন কর্মী তৈরি করে কাউন্সিল করবো। এখন ৭ তারিখের সমাবেশ নিয়ে প্রতিটি থানায় প্রস্তুতি সভা করেন। 

 

জরুরীসভায় জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আবু হাসনাত শহীদ মো.বাদল, বন্দর উপজেলা চেয়ারম্যান এমএ রশিদ, মহানগর আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক শাহ নিজাম, সাংগঠনিক সম্পাদক জাকিরুল আলম হেলাল, মহানগর যুবলীগের সভাপতি শাহাদাৎ হোসেন সাজনু, পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) ওয়াজেদ আলী খোকন, মহানগর স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি জুয়েল হোসেন, সাধারণ সম্পাদক সাইফুদ্দিন প্রধান দুলাল, নাসিক কাউন্সিলর নাজমুল আলম সজল, আব্দুল করিম বাবু, কামরুল হাসান মুন্না, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি এহসানুল হক নিপু, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি সাফায়াত আলম সানি প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। 
 

এই বিভাগের আরো খবর