বুধবার   ১৬ অক্টোবর ২০১৯   আশ্বিন ৩০ ১৪২৬   ১৬ সফর ১৪৪১

আবরার হত্যার প্রতিবাদে সাধারণ শিক্ষার্থীদের অবস্থান কর্মসূচি পালন

প্রকাশিত: ৮ অক্টোবর ২০১৯  

স্টাফ রিপোর্টার (যুগের চিন্তা ২৪) : বুয়েটের মেধাবী ছাত্র আবরার ফাহাদকে পিটিয়ে হত্যার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছেন নারায়ণগঞ্জের বিভিন্ন স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা।


মঙ্গলবার (৮ মঙ্গলবার ) সকাল দশটায় নগরীর চাষাড়া শহীদ মিনারের সামনেনা নারায়ণগঞ্জের সর্বস্তরের সাধারণ শিক্ষার্থীদের আয়োাজনে এ কর্মসূচি পালন করা হয়।

 

নিহত আবরার ফাহাদের হত্যার বিচারের দাবি জানিয়ে সাধারণ শিক্ষার্থীরা বলেন, কে কোন রাজনীতি করে আমরা জানতে চাই না। যারাই এই হত্যার ঘটনার সাথে জড়িত সকলের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করছি। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কলমের পরিবর্তে অস্ত্র তুলে দেওয়া হয়েছে। আবরার হত্যার মধ্য দিয়ে দেশের মেধা শক্তিকে হত্যা করা হয়েছে। 


তারা আরও বলেন, সাধারণ ফেইসবুকে একটি পোস্ট দেওয়াকে কেন্দ্র করে একজন মেধাবী ছাত্রকে পিটিয়ে হত্যা করেন বুয়েট ছাত্রলীগের সন্ত্রাসীরা। ইতিমধ্যে ছাত্রলীগ এক তদন্ত কমিটি গঠন করে ১১ জনকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করেছেন। এতেই প্রমাণ হয় ছাত্রলীগ সন্ত্রাসী সংগঠন। আমরা চাই আমার ভাইয়ের হত্যা বিচার।আবরার হত্যাকাণ্ডের সাথে যারা যারা জড়িত তাদের সবাইকে গ্রেপ্তার করে উপযুক্ত শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে। তা-নাহলে সামনে কঠোর কর্মসূচি পালন করা হবে।


ঢাকা পিপলস ইউনিভার্সিটির ছাত্র আবু তালহা আব্দুল্লাহর সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন, মাহমুদুল হাসান, কৌশিক, ইফতি, আবুল কালাম আজাদ, শাকিল, আদনান, উম্মে হাবিবা আলভী, সাবিনুর নাহার কেয়া, উম্মে সালমা জান্নাতসহ বিভিন্ন স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা।

 

গত রোববার দিবাগত রাত তিনটার দিকে বুয়েটের শের-ই-বাংলা হলের একতলা থেকে দোতলায় ওঠার সিঁড়ির মাঝ থেকে আবরারের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। জানা যায়, ওই রাতেই হলটির ২০১১ নম্বর কক্ষে আবরারকে পেটান বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতা। ময়নাতদন্তকারী চিকিৎসক জানিয়েছেন, তাঁর মরদেহে অসংখ্য আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে। আবরার বুয়েটের তড়িৎ ও ইলেকট্রনিক প্রকৌশল বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের (১৭তম ব্যাচ) শিক্ষার্থী ছিলেন।

 

আবরার হত্যাকাণ্ডে ঘটনায় ১৯ জনকে আসামি করে সোমবার সন্ধ্যার পর চকবাজার থানায় একটি হত্যা মামলা করেন নিহত আবরারের বাবা বরকত উল্লাহ্। এ ঘটনায় শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকসহ বেশ কয়েকজনকে গ্রেপ্তারের তথ্য জানিয়েছে পুলিশ।

এই বিভাগের আরো খবর