শুক্রবার   ২২ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ৮ ১৪২৬   ২৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

অ্যাথলেটিক্স ফেডারেশনের নির্বাচনে ইব্রাহিম চেঙ্গিসের ভরাডুবি

প্রকাশিত: ২৫ আগস্ট ২০১৯  

স্টাফ রিপোর্টার (যুগের চিন্তা ২৪) : বাংলাদেশ অ্যাথলেটিক্স ফেডারেশনের কার্যনির্বাহী কমিটির নির্বাচনে নারায়ণগঞ্জ জেলা ক্রীড়া সংস্থার অতিরিক্ত সাধারণ সম্পাদক ও জেলা কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদক ইব্রাহিম চেঙ্গিসের ভরাডুবি হয়েছে। সহসভাপতি পদে নির্বাচন করতে নেমে বাংলাদেশ অ্যাথলেটিক্স ফেডারেশনের সাবেক এই সাধারণ সম্পাদক বিপুল ভোটব্যবধানে নাস্তানাবুদ হয়েছে।

 

গত ৩ আগস্ট অনুষ্ঠিত অ্যাথলেটিক্স ফেডারেশনের নির্বাচনে তিনি মাত্র ২৪ ভোট পেয়েছেন। সহসভাপতি পদে ১১১ ভোট পেয়ে নুরুউদ্দিন চৌধুরী নয়ন, ৯৬ ভোট পেয়ে ফারুকুল ইসলাম দ্বিতীয়, ৯৩ ভোট পেয়ে জায়েদুল ইসলাম তৃতীয়, এসএম মোর্তেজা রোশেনীদারা ৯৩ ভোট পেয়ে চতুর্থ, ৮০ ভোট পেয়ে তোফাজ্জেল হোসেন পঞ্চম, ২৯ ভোট পেয়ে আমজাদ আলী খান ষষ্ঠ, ২৬ ভোট পেয়ে মজিবর রহমান মল্লিক সপ্তম এবং ২৪ ভোট পেয়ে ইব্রাহিম চেঙ্গিস অষ্টম হয়েছেন। 


অ্যাথলেটিক্স ফেডারেশনের কার্যনির্বাহী কমিটির নির্বাচনে ৫ সহসভাপতি, ২ যুগ্ম সম্পাদক, ১  কোষাধ্যক্ষ ও ১৯ সদস্য পদে নির্বাচন হলেও মূল লড়াইটা সাধারণ সম্পাদক পদে। তবে এবার সাধারণ সম্পাদক পদে এড.আব্দুর রকিব মন্টু ৯৬ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। এই পদে অর্ধযুগের মধ্যে আগে অনুষ্ঠিত হওয়া নির্বাচনে টানা দুইবার নির্বাচিত হয়েছিলেন তিনি।

 

এমপি শামীম ওসমানের অত্যন্ত ঘনিষ্ঠজন হিসেবে পরিচিত ইব্রাহিম চেঙ্গিসের প্রভাব ছিলো সর্বত্র। কিন্তু এমনটি আর এখন নেই। শামীম ওসমানের ক্ষয়িষ্ণু প্রভাবের যার দরুণ নির্বাচনে এমন ভরাডুবি হয়েছে বলে মনে করছেন অনেকে। জেলায় শামীম ওসমানের কিছুটা প্রভাব থাকলেও জাতীয় পর্যায়ে সেটি খুব নগণ্য হিসেবেই কাজ করেছে। যদিও নারায়ণগঞ্জ জেলা ক্রীড়া সংস্থার কার্যনির্বাহী পরিষদের নির্বাচনে প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ দিনে (২০মে) নির্দিষ্টসংখ্যক প্রার্থীর অতিরিক্ত কোনো মনোনয়নপত্র না থাকায় জমাকৃত সব প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। আর তাতে অতিরিক্ত সাধারণ সম্পাদক হিসেবে জায়গা পান ইব্রাহিম চেঙ্গিস।

এই বিভাগের আরো খবর